শুক্রবার, ২০ মে ২০২২, ০৭:২৯ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
Logo বৈশাখ মাসের ধানের নতুন গন্ধ Logo ফোঁটা জল প্রায় 90 দিন লাগে। Logo ১৪ ফেব্রুয়ারি ভালোবাসা দিবসের পাশাপাশি আজ সুন্দরবন দিবস Logo রংপুরে স্নেহা জেনারেল হাসপাতালে দোয়া মাহফিল ও শুভ উদ্বোধন।  Logo নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান এর ছেলের নামে মিথ্যা অভিযোগ ও মামলার প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন Logo নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান মোঃ দাউদ হোসেন এর উদ্যোগে গণ টিকা উদ্বোধন  Logo সীমান্ত এলাকায় শীতবস্ত্র বিতরণ করলেন লাভলী Logo ভোরের চেতনা পত্রিকার সম্পাদক আগমন উপলক্ষে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন জেলা প্রতিনিধি মিরাজুল শেখ Logo বাগেরহাটে সন্তানের সামনে মাকে ধর্ষণ,ধর্ষককে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত Logo বাগেরহাট পৌরসভায় শুরু হয়েছে নিবন্ধন ছাড়াই টিকা দান কর্মসূচী

নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান এর ছেলের নামে মিথ্যা অভিযোগ ও মামলার প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন

নিউজ ডেস্ব / ১৭৬ বার পঠিত
আপডেট : শনিবার, ৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২২, ১০:৩৮ অপরাহ্ণ

মাহমুদুল হাসান যশোর জেলা প্রতিনিধি

যশোর সদর উপজেলার ৭ নং চুড়ামনকাটি ইউনিয়নের নবনির্বাতি চেয়ারম্যান মোঃদাউদ হোসেনের ছেলে তানভীর রক্সির বিরুদ্ধে মিথ্যা ও হয়রাণিমূলক মামলা প্রত্যাহার ও ষড়যন্ত্রকারীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার দাবিতে সংবাদ সম্মেলন করা হয়েছে। শনিবার বিকালে চুড়ামনকাটি বাজারে নিজ অফিসে এই সংবাদ সম্মেলন করেন রক্সি। সংবাদ সম্মেলনে তিনি দাবি করেন, ৫ জানুয়ারি চুড়ামনকাটির জনগণ সন্ত্রাসীদের বয়কট করে বিপুল ভোটে নৌকার প্রার্থীকে জয়ী করেন। সেই নির্বাচনে পরাজিতরা অর্থ ব্যয় করে অপহরণের সাথে আমাকে জড়িয়ে দেন। ৩১ জানুয়ারি রাত ১০টার দিকে সাজিয়ালি পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ আমাকে ফোন করে বলেন, বিষয়টি নিয়ে ওসি স্যার আপনার সাথে কথা বলতে চান। আমি স্বশরীরে থানায় উপস্থিত হই।
তখন আমাকে আটক করার পাশাপাশি আমার নামে মিথ্যা মামলা দেয়া হয়। আমি যদি এই অপহরণের সাথে জড়িত থাকতাম তাহলে নিশ্চয় থানায় নিজে হাজির হতাম না। আমি সরল বিশ্বাসে ম্যাডামের কথায় অপহরণের শিকার শাকিল আহমেদকে উদ্ধারের জন্য কাজ করেছি মাত্র। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন চুড়ামনকাটি ইউনিয়নের ৪ নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য সিরাজুল ইসলাম, ৪ নং ওয়ার্ড যুবলীগের সভাপতি সোহাগ হোসেন, চুড়ামনকাটি বাজার কমিটির সদস্য মিলন কর্মকার, যুবলীগ নেতা হাদিসুর রহমান প্রমুখ। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে বলা হয়, ৩১ জানুয়ারি আমাকে আমার ম্যাডাম লতিফা খাতুন মোবাইল করেন। তিনি জানান, গত ৩০ জানুয়ারি কয়েকজন দৃর্বৃত্ত তার বাড়ি থেকে কোরআন শরীফ পড়ানো অবস্থায় শাকিল আহমেদকে অপহরণ করেন। তাকে উদ্ধার করতে ম্যাডাম আমার কাছে সহযোগিতা চান। পরে আমি বিষয়টি নিয়ে খোঁজ-খবর নিতে শুরু করি। ওই দিন সন্ধ্যায় আমি অপহৃত শাকিল আহমেদের সন্ধ্যান পাই। যারা তাকে অপহরণ করেন তাদের আমি আমার অফিসে আসতে বলি। সন্ধ্যান পাওয়ার বিষয়টি আমি ফোনে ম্যাডম ও শাকিল আহমেদের পরিবারের সদস্যদের জানাই। কিন্তু এই বিষয়টি নিয়ে আমার রাজনৈতিক প্রতিপক্ষরা ষড়যন্ত্র করে। তাদের ষড়যন্ত্রে ১ ফেব্রুয়ারি যশোর কোতোয়ালী মডেল থানায় আমার নামে একটি মিথ্যা হয়রানিমূলক মামলা করা হয়। সর্বশেষ ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে পরাজিত হয়ে আমার ও আমার পরিবারের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র শুরু করেছে তারা। যার অংশ হিসেবেই এই মামলা করানো হয়েছে। মামলায় অর্থনৈতিক লেনদেনের কথা বলা হয়েছে যার সাথে আমার কোন সম্পর্ক নেই। যে মোবাইল নম্বরে বিকাশ করা হয়েছে বলে মামলায় উল্লেখ করা হয়েছে সেই নম্বরটিও আমার নয়। শুধু তাই নয়, ওই মোবাইল নম্বরের মালিকের সাথেও আমার কোন সম্পর্ক নেই। সংবাদ সম্মেলন থেকে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার ও তদন্তের মাধ্যমে ষড়যন্ত্রের সাথে জড়িতদের খুজে বের করে তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নিতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর প্রতি অনুরোধ জানানো হয়।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

Theme Customized By Theme Park BD