রবিবার, ২৩ জানুয়ারী ২০২২, ০৭:২৫ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
Logo নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান মোঃ দাউদ হোসেন এর উদ্যোগে গণ টিকা উদ্বোধন  Logo সীমান্ত এলাকায় শীতবস্ত্র বিতরণ করলেন লাভলী Logo ভোরের চেতনা পত্রিকার সম্পাদক আগমন উপলক্ষে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন জেলা প্রতিনিধি মিরাজুল শেখ Logo বাগেরহাটে সন্তানের সামনে মাকে ধর্ষণ,ধর্ষককে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত Logo বাগেরহাট পৌরসভায় শুরু হয়েছে নিবন্ধন ছাড়াই টিকা দান কর্মসূচী Logo রংপুরে সেচ্ছাসেবী সংগঠন পিজিএসের উদ্দ্যোগে স্যানিটারি ন্যাপকিন বিতরণ Logo খুলনা রেঞ্জের শ্রেষ্ঠ জেলা হিসেবে পুরস্কার পেল খুলনা Logo কুলাউড়া থানায় ১৫০ পিস ইয়াবা সহ ০২ জন মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার Logo হিলি সীমান্তে বিএসএফের হাতে আটক দুই শিক্ষার্থী; ৫ ঘন্টা পর ফেরত Logo রংপুরে শীতবস্ত্র বিতরণ করলেন ইকোনমিক পলিসি ও বাংলার চোখ

ভিটেমাটিহীন ১১টি পরিবার পাচ্ছে জমিসহ থাকার ঘড়

নিউজ ডেস্ব / ৪৯ বার পঠিত
আপডেট : মঙ্গলবার, ২১ ডিসেম্বর, ২০২১, ৯:৪৫ পূর্বাহ্ণ

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি,

ইটের খোয়া,সিমেন্ট আর বালির সংমিশ্রণে প্রস্তুত করা হচ্ছে ঘড় তৈরীর মসলা। একসাথে তৈরী হচ্ছে ২৪ টি বেডরুম,১১টি বাথরুম ও ১১ টি রান্নাঘড়৷ কিছুদিনের মধ্যে কাজ শেষ হলেই হস্তান্তর করা হবে ১১ টি পরিবারের মাঝে। নিজস্ব জমি ও ঘড় না থাকা সেই সমস্ত পরিবারগুলোর জন্য তৈরী হচ্ছে এই ঘড়গুলো।

অরাজনৈত্তিক দাওয়াহ ও মানবিক প্রতিষ্ঠান আস সুন্নাহ ফাউন্ডেশন এর উদ্যোগে ঠাকুরগাঁও জেলার জমি ও ঘড় না থাকা ১১ টি পরিবারের জন্য তৈরী করা হচ্ছে ঘড়গুলো। ঠাকুরগাঁওয়ের সদর উপজেলার মোহাম্মদ ইউনিয়নের বিমানবন্দর এলাকার পস্তমপুরে তৈরী করা হচ্ছে ঘড়গুলো। প্রতিটি পরিবারের জন্য তৈরী করা হচ্ছে ০২ টি বেডরুম, ১ টি বাথরুম ও ১ টি রান্নাঘড়। ঘড় স্থাপনের জমিটিও কেনা হয়েছে প্রত্যেক পরিবারের জন্য। প্রত্যেক পরিবারের নামে প্রায় ১.৫ শতক জমি ইতিমধ্যে রেজিস্ট্রি করে দেওয়া হয়েছে।

ঘড় পেতে যাওয়া আবদুল্লাহ বলেন,আমাদের থাকার কোন জায়গা নেই। যেখানে থাকি সেটা রেলের জমি। জুয়েল ভাইকে আমরা বিষয়টি বলেছি। উনার সহযোগিতায় আমাদের জমিসহ ঘড় দিচ্ছে সুন্নাহ ফাউন্ডেশন। যারা আমাদের এই জমিসহ ঘড় দিচ্ছে আল্লাহ উনাদের ভাল রাখুক।

আমিনা খাতুন বলেন,আমাদের থাকার কোন জায়গা ছিলনা৷ আমাদের এইরকম টাকা পয়সা নাই যে আমরা জমি কিনে ঘড় বাড়ি করব । আমরা রেলের জায়গায় থাকি। সুন্নাহ ফাউন্ডেশন আমাদের ব্যবস্থা করে দিয়েছেন আমরা এখন ভালভাবে ঘুমাতে পারব এবং ইবাদাত বন্দেগি করতে পারব৷ যারা করে দিয়েছেন আল্লাহ উনাদের ভাল করুক।

ঘড় পেতে যাওয়া খায়রুল ইসলাম বলেন, আমি ২০০৭ সাল থেকে এখন অব্দি বাসা ভাড়া নিয়ে থাকি৷ আমার কোন সামর্থ্য নেই জমি কিনে আবার বাসা করার৷ আমরা বিষয়টি জুয়েল ভাইকে অবগত করি৷ তিনি আস সুন্নাহ ফাউন্ডেশনকে বিষয়টি অবগত করলে তারা আমাদের জন্য বিমানবন্দর এলাকায় জমিসহ ঘড় করে দিচ্ছে। আমাদের ১১ টি পরিবারের প্রত্যেক পরিবারের জন্য কোর্টে ১.৫ শতক করে জমি রেজিস্ট্রি করে দেওয়া হয়েছে। আমরা এই জমিসহ ঘড় পেয়ে অনেক খুশি ও আনন্দিত। যারা এ কাজে সম্পৃত আছেন তাদের আল্লাহ ভাল করুক।

 

কর্মরত রাজমিস্ত্রী সলেমান বলেন,আমরা যে ঘড়গুলো তৈরী করছি এগুলো অনেক মানসম্মত ইট, সিমেন্ট ও রড ব্যবহার করে৷ এটি অনেকদিন টেকসই হবে আশা করছি৷

আস সুন্নাহ ফাউন্ডেশন দায়িত্বরত প্রতিনিধি আক্তার আহমেদ জুয়েল বলেন,আস সুন্নাহ ফাউন্ডেশন এর পক্ষ থেকে আমরা জমিসহ ঘড় ১১ টি পরিবারের জন্য তৈরী করছি। যাদের কোন জমি নেই, বাসা ভাড়া নিয়ে থাকেন মূলত তাদের আবেদনের প্রেক্ষিতে আমরা কয়েকজন মিলে আস সুন্নাহ ফাউন্ডেশন এর সাথে যোগাযোগ করি৷ তারা আমাদের সাড়া দিয়ে ১১ টি পরিবারের জন্য জমিসহ ঘড় তৈরী করে দিচ্ছে। যারা পাচ্ছে ঘড়গুলো তারা অনেক অসহায় ও নিঃস্ব মানুষ৷ এখানে প্রত্যেক পরিবারের জন্য ২ টি বেডরুম,১ টি বাথরুম ও ১ টি রান্নাঘঠ তৈরী করে দেওয়া হচ্ছে। যারা পুরো খরচ বহন করছে আস সুন্নাহ ফাউন্ডেশন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

Theme Customized By Theme Park BD