রবিবার, ২৩ জানুয়ারী ২০২২, ০৭:১৬ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
Logo নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান মোঃ দাউদ হোসেন এর উদ্যোগে গণ টিকা উদ্বোধন  Logo সীমান্ত এলাকায় শীতবস্ত্র বিতরণ করলেন লাভলী Logo ভোরের চেতনা পত্রিকার সম্পাদক আগমন উপলক্ষে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন জেলা প্রতিনিধি মিরাজুল শেখ Logo বাগেরহাটে সন্তানের সামনে মাকে ধর্ষণ,ধর্ষককে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত Logo বাগেরহাট পৌরসভায় শুরু হয়েছে নিবন্ধন ছাড়াই টিকা দান কর্মসূচী Logo রংপুরে সেচ্ছাসেবী সংগঠন পিজিএসের উদ্দ্যোগে স্যানিটারি ন্যাপকিন বিতরণ Logo খুলনা রেঞ্জের শ্রেষ্ঠ জেলা হিসেবে পুরস্কার পেল খুলনা Logo কুলাউড়া থানায় ১৫০ পিস ইয়াবা সহ ০২ জন মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার Logo হিলি সীমান্তে বিএসএফের হাতে আটক দুই শিক্ষার্থী; ৫ ঘন্টা পর ফেরত Logo রংপুরে শীতবস্ত্র বিতরণ করলেন ইকোনমিক পলিসি ও বাংলার চোখ

ইসলামিক কলাম ✍️ নিয়তের কারণে জমানো টাকা আমাদের কাল হয়ে দাঁড়ায়

নিউজ ডেস্ব / ৫৪ বার পঠিত
আপডেট : রবিবার, ১২ ডিসেম্বর, ২০২১, ১১:১৩ পূর্বাহ্ণ

মাওলানা মুফতী জাহিদ নু’মানী, নরসিংদী। 

আমরা সবাই টাকা জমাই কি নিয়তে জানেন? যে বিপদে কাজে লাগবে, রোগবালাই আসতে পারে তখন কাজে লাগবে, তাই না? আর এটাই আমাদের কাল হয়ে দাঁড়ায়। টাকা কেউ বিপদ বা অসুস্থতার কথা চিন্তা করে জমালে ১০০% অবশ্যই তার বিপদ ও ডাক্তারের কাজ লাগবে, বিশ্বাস না হলে ১ বছর এ নিয়তে টাকা রেখে তারপর দেখুন। আর যারা রেখেছিলেন তারা একটু খেয়াল করে দেখুন তো, যে নিয়তে রেখেছেন সেটাই ঘটেছে।

আমরা অনেকে সঞ্চয় করি বিপদের কথা মাথায় রেখে – আমি যদি বিপদে পড়ি তাহলে এ টাকাটা আমার কাজে লাগবে। ব্যাপারটা এমন যেন, আপনি নিজে গিয়ে বিপদকে ডেকে আনছেন। কারণ, রসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তার বিখ্যাত ‘ইন্নামাল ‘আমালু বিন নিয়্যাহ’ হাদিসের পরের বাক্যটিতেই বলেছেন,

‘ইন্নামা লিকুল্লিম রিইম মা নাওয়াহ।’

অর্থাৎ সে তেমনটাই পাবে যেমনটা সে ইচ্ছে করেছিল।

সঞ্চয় ইসলামে নিষিদ্ধ নয়।

কিন্তু আপনি কেন টাকা জমাচ্ছেন সেটা নিজেকে জিজ্ঞেস করে নিন। হজ্বের জন্য টাকা জমালে আল্লাহ আপনাকে হজ্ব করার তাওফিক দেবেন। আপনি যদি আপনার গ্রামের বাড়িতে একটা মাসজিদ বানানোর স্বপ্ন দেখেন, সেই উদ্দেশ্যে অল্প করেও টাকা জমান, দেখবেন আল্লাহ ঠিকই আপনাকে দিয়ে একটা মাসজিদ তৈরি করে নিয়েছেন।

আপনার বেতন অল্প – কিন্তু খুব ইচ্ছা কুরবানি করার? প্রতিমাসে অল্প করে টাকা জমান – দেখবেন ঈদের সময় পশু কেনার পয়সা হয়ে গিয়েছে। অবিবাহিত ভাইদের উচিত বিয়ের মোহরের জন্য, ওয়ালিমার জন্য টাকা জমানো। এখন থেকে সবসময় মনে রাখবেন, জমাতে হবে কোনো হালাল টার্গেট নিয়ে, হজ্জ বা ওমরা করবো, একটি খাট কিনবো, শোকেস কিনবো, বাড়ি করবো এসব। একসময় দেখবেন টাকা জমাতে জমাতে ওমরা করার পয়সা হয়ে গেছে, ফার্ণিচারগুলো কিনে ফেলেছেন, বাড়িও করে ফেলেছেন। আর হ্যাঁ টাকা জমাতে গিয়ে ভাগ্যে যদি কোনো প্রকার বিপদ এসে পড়ে, নো প্রবলেম তখন জমানো টাকা থেকেই ভাঙবে। বাট সে টাকা বিপদের টার্গেট করে কখনো জমাবে না।

আপনি ভালো কাজের নিয়াহ করে টাকা জমান। আল্লাহ আপনাকে সেই ভালো কাজের নিয়ত পূর্ণ করে দেবেন।

আপনি অভাবের জন্য টাকা জমালে সম্ভাবনা আছে আল্লাহ আপনাকে সেই অভাবে ফেলবেন। যারা অসুস্থ হওয়ার কথা চিন্তা করে টাকা জমান – দেখা যায় তাদের অনেকের কাছ থেকে হসপিটালের বিল বাবদ ওই টাকাটা আল্লাহ বের করে নেন। বিপদ আল্লাহই দেন। বিপদ থেকে বাঁচার সবচেয়ে ভালো বুদ্ধি হচ্ছে আল্লাহর কাছে দু’আ করা। তাঁকে বলা,

“মালিক, আমার জমানো টাকাটা আপনি আপনার জন্য, ভালো কাজে খরচ করার সামর্থ্য দেন। অসৎ, অসাধু, স্বার্থপর লোকদের পেটে যেন আমার এই হালাল টাকা না যায়।” দেখবেন, আল্লাহ আপনাকে হিফাজাত করবেন, আপনার আয়ে বারাকাহ দেবেন এবং আল্লাহকে সন্তুষ্ট করার উদ্দেশ্য থাকায় নিতান্ত দুনিয়াবি কাজের মাধ্যমেও আল্লাহ আখিরাতে আপনাকে পুরষ্কৃত করবেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

Theme Customized By Theme Park BD